এই ৭ ধরণের পুরু’ষকে কখনই ‘না’ বলতে পারে না মেয়েরা ।

বর্তমান সময়ের মহিলাদের মধ্যে পুরুষ বা জীবন সঙ্গী নির্বাচনের সময় বেশ কয়েকটি জিনিস খেয়াল রাখতে দেখা যায়। এই নিয়ে একেকজনের একেক মতামত রয়েছে। তবে সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী, ৭ ধরণের পুরুষ আছেন। যাঁদের সাথে থাকতে ভালোবাসেন মহিলারা।

১) যে সব পুরুষের মধ্যে সূক্ষ সেন্স অফ হিউমা’র আছে অর্থাৎ বুদ্ধিদীপ্ত ব্যক্তিত্ব, সেইসব পুরুষদের সাথে সময় কাটাতে ভালোবাসেন মেয়েরা। যিনি সঙ্গীর কথা মন দিয়ে শোনেন, সঙ্গিনীর মুখে হাসি ফোটাতে পারেন। সুন্দরভাবে আলাপ-আলোচনা বাড়াতে পারেন, তাঁদের সাথেই বেশি সময় কাটাতে ভালোবাসেন মহিলারা।

২) এছাড়া ধরুন, আপনার সঙ্গিনী রেগে আছেন, এই সময় আপনি তাঁর একটা প্রিয় গান গাইলেন। তাহলে তাঁর মন ভালো হয়ে যাবে। আর এই ধরণের পুরুষ চান মহিলারা। অর্থাৎ যে পুরুষের মধ্যে শিল্পীসত্তা আছে, তিনি খুব সহজেই মহিলাদের মনের মানুষ হয়ে উঠতে পারবে।

৩) যে পুরুষ নিজের ব্যক্তিত্ব এবং কাজ স’ম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী, সেরকম পুরুষের সাথে থাকতে পছন্দ করেন মহিলারা। একজন আত্মবিশ্বাসী পুরুষের সাথে সবসময় থাকতে ভালোবাসেন মহিলারা।

৪) আর নিজেদের চেনা-পরিচিতদের গণ্ডির বাইরে এমন কোনও পুরুষ যদি সামনে আসেন, যাঁর কথা বলার ধরন, চলাফেরা একটু আলাদা, তাঁর প্রতি আকৃষ্ট হওয়াটা স্বাভাবিক! মেয়েরা একটু অন্যরকম কিছুই সবসময় পছন্দ করেন।
৫) আবার দায়িত্ববান পুরুষদের সান্নিধ্য পেতে মহিলারা সবসময় পছন্দ করেন। এই ধরুন রাতে ডিনারের পর বাড়ি পর্যন্ত ড্রপ করে যান, আবার রেস্তোরাতে চেয়ার রেডি করে বসে থাকা এইসব কিছুই তো দায়িত্ববান পুরুষের লক্ষণ।

৬) রোম্যান্টিক পুরুষদের ভালোবাসেন মহিলারা। মাঝেমধ্যেই পছন্দের চকোলেট, ফুলের তোড়া দিয়ে ইমপ্রেস করার মজাটাই আলাদা। আর এইসময় মহিলাদের মুখের ওই হাসিটা সবথেকে দামি। এছাড়া অফিসে কাজের ফাঁকে গার্লফ্রেন্ড বা সঙ্গিনীকে মিস ইউ বললে সম্পর্কটা আরও গভীর হয়।

৭) আর সর্বশেষ, আপনার মেজাজকে অবশ্যই ভালো রাখতে হবে। বিন্দাস মেজাজের পুরুষদের প্রতিও মেয়েদের আকর্ষণ প্রায়ই দেখা যায়। কারণ এদের সাথে থাকলে সবসমই হাসি-খুশিতে থাকা যায়। জীবনে কোনো দুশ্চিন্তাও থাকে না। হঠাৎ করেই লং ড্রাইভে বেরিয়ে পড়া কিংবা ডিনারে যাওয়া। এগুলি বেশি পছন্দ করেন মহিলারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.