মুখের স্কিনে বয়’সের ছা’প? বাড়ি’তে ঘরোয়া উ’পায়ে খুব সহজে বানিয়ে ফেলুন অপ’রাজিতা ফু’লের না’ইট ক্রিম, ফল পাবেন হাতে’নাতে

১) ক্রিম তৈরির জন্য আপ’নাদের মোটামুটি ৮ থেকে ১০ টা অপ’রাজিতা ফুল নিয়ে নিতে হবে। ফুল’গুলির নিচের অংশে দেখবেন একটি সবু’জ মতন থাকে সেটাকে প্রথমেই আপনাদের সরিয়ে দিতে হবে। এরপর একটি প’রিষ্কার জারের মধ্যে আপনাদের ফুলগুলিকে তুলে নিতে হবে। এই জারে’র মধ্যে গরম জল ঢেলে দিন।

এরপর জারে ঢাকনা ব’ন্ধ করে কিছুক্ষণ রেখে দিন এবং ভেতরে’র অংশে পরিবর্তন দেখতে থাকুন। দেখবেন ফুল থেকে ধীরে ধীরে সমস্ত নির্যাস, বেরিয়ে জলের মধ্যে কিন্তু মিশে যাচ্ছে। মোটামুটি ১০ থেকে ১৫ মিনিট পরেই কিন্তু আপনারা ক্রিম তৈরির কাজ শুরু করতে পারেন।

২) দ্বিতীয় ধাপে আপনাদের প্রথমেই একটি মিক্সি ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর ওই জল সমেত ফুলগুলিকে ভালো করে মিক্সি’তে বেটে নিতে হবে। এবারে বেটে নেবার পরে একটা সুতির কাপড় ব্যবহার করে অপর একটি পা’ত্রের মধ্যে এই ফুল মিশ্রিত জল আপনাকে ছেঁকে নিতে হবে। এবার একটি অন্য বাটিতে আপনাদের নিয়ে নিতে হবে কি’ছুটা পরিমাণে কর্নফ্লাওয়ার। খুব সহজেই বাজারের মুদির দোকান থেকে আপনারা এটা কিনতে পেরে যাবেন। এবার কনফ্লাওয়ার এর মধ্যে ফুলের নির্যাস যুক্ত কিছুটা জল ঢেলে দিতে হবে।

৩) এবার আ’পনাদের গ্যাসে একটি কড়াই বসিয়ে তাতে কিছুটা পরিমাণ জল গরম করে নিতে হবে। এরপর কর্নফ্লা’ওয়ার আর ফুলের নির্যাস মিশ্রিত জল যে বাটিতে আপনারা রেখেছিলেন সেটাকে এই কড়াইয়ের উপর দিয়ে ডবল বয়েল করে নিতে হবে। তাপে কিন্তু ধীরে ধীরে এটা গাঢ় হতে শুরু করবে। মোটামুটি পাঁচ থেকে ছয় মিনিটের মধ্যেই কিন্তু এই মিশ্রণটি সম্পূর্ণরূপে ঘন হয়ে যাবে। এরপর একটা অন্য পাত্রের মধ্যে আপ’নাকে নিয়ে নিতে হবে দুই থেকে তিন চামচ পরিমাণ অ্যা’লোভেরা জেল, তিনটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল।

অ্যালোভেরা জেল আর ভিটামিন ই ক্যাপসুল ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পরে এই মিশ্রণের মধ্যে যোগ করে দিতে হবে দেড় চামচ আলমন্ড অয়েল। যদি আপনার কাছে আলমন্ড অয়েল না থাকে সেক্ষেত্রে নারকেল তেলও কিন্তু আপনারা ব্যবহার করতে পারেন। আমাদের তো এক সুন্দর কোমল মশ্চারাইজিং করতে নারকেল তেল কতটা কাজে লাগে তা কিন্তু আপনারা প্রায় কম বেশি সকলেই জানেন। পাশাপাশি এই তেলটি আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই সহজলভ্য।

৪) সর্বশেষ ধাপে আপনাকে ফুল আর কর্নফ্লাওয়ার এর মিশ্রণটিকে আপনাদের এর মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে মিশে গিয়ে এটা কিন্তু সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক রঙে রূপান্তরিত হয়ে যাবে। ব্যাস এই সমস্ত উপকরণ একসাথে মিশিয়ে নেওয়ার পরে ক্রিমের কনসিসটেন্সি ঠিক করার জন্য সামান্য পরিমাণ ফুল মিশ্রিত জল আপনারা এখানে যোগ করে দিতে পারেন। ক্রিম তৈরি করার আগে তাই অবশ্যই সেই জলের নির্যাস কিন্তু একটু আলাদা করে রেখে দিতে ভুলবেন না। ব্যাস তৈরি হয়ে গেল আপনাদের অতি প্রয়োজনীয় নাইট ক্রিম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.