প্রেমে স্বার্থপর হবেন যে ৪ কারণে

শুনতে যেমনই লাগুক, প্রেমের ক্ষেত্রে কিছুটা স্বার্থপর যেন না হলেই নয়। প্রেমের ক্ষেত্রে ত্যাগ ও তিতীক্ষার উদাহরণ মানা হয় মেয়েদেরকেই। প্রেমিক পুরুষটি পছন্দ করেন না বলে চাকরি ছেড়ে দেয়ার উদাহরণ তো ভুরিভুরি!

প্রেমিকের মতামতকে গুরুত্ব দিতে গিয়ে নিজেকেই একটা সময় গুরুত্বহীন মনে হতে শুরু করে! প্রেমে ত্যাগ থাকবে, তবে নিজেকে উজার করে নয়। নিজস্বতা ধরে রেখেই ভালোবাসতে হবে। কিছু ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে মেয়েদেরকে একটুখানি স্বার্থপর হতেই হবে, এবং তা টিকে থাকার তাগিদেই।

১. নিজেকে ভালোবাসুন
যদি আপনি নিজেই নিজেকে সুখি না করতে পারেন তবে কেউ আপনাকে সুখি করতে পারবে না। প্রথমে নিজেকে ভালোবাসা জরুরি। তবেই আপনি বুঝতে পারবেন কিভাবে চারপাশের মানুষেরা আপনাকে সুখি করতে পারে। আপনার ভালো থাকার চাবি আপনারই হাতে, চারপাশের মানুষেরা কেবল আপনাকে সাহায্য করতে পারে। প্রেমিকের জন্য আপনার সময়, শক্তি, আবেগ খরচ করার আগে ভেবে দেখুন আপনি কী চান! মন থেকে ভালোবাসলেই কেবল আপনাদের সম্পর্কটি সুখের হবে।

২. না বলতে শিখুন
এখানেই অনেকে ভুল করে! যখন কোনোকিছু আপনার দ্বারা সম্ভব হবে না, সরাসরি ‘না’ বলে দিন। ঘরের টুকিটাকি কাজ করে দেয়া কিংবা সম্পর্কে আপোষ- যে ক্ষেত্রেই হোক না কেন, সামর্থ্যের চেয়ে বেশিকিছু করতে গেলে একটা নিজের উদ্যোমই হারিয়ে ফেলবেন। তাই সঠিক ক্ষেত্রে ‘না’ বলতে শেখা জরুরি।

৩. আর্থিক স্বাধীনতা
সঙ্গী কত ইনকাম করেন সেটা ব্যাপার নয়, আপনার আর্থিক স্বাধীনতা সম্পূর্ণই নির্ভর করছে নিজের ওপর। তাই একটু ‘স্বার্থপর’ হয়েই চিন্তা করুন আর্থিক স্বাধীনতা আপনাকে একজন স্বাধীন মানুষ হিসেবে বাঁচতে সাহায্য করবে। এটি আপনার আত্মবিশ্বাসেরও কারণ।

৪. নিজের চোখে বিশ্ব দেখুন
বাঁধাধরা জীবন থেকে বের হয়ে আসুন। জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে নিজের মত ও অনুভূতিকে তৈরি করুন। যখন মনে হবে এখন সঠিক বয়স, তখনই বিয়ে করুন। সন্তানের জন্ম কখন দেবেন সেই সিদ্ধান্তও একান্তই আপনার। তাই নিজের সিদ্ধান্ত নিজেই নিতে শিখুন, আপনার জীবনের নিয়ন্ত্রণ কখনোই অন্যের হাতে দেবেন না!

Leave a Reply

Your email address will not be published.