যে দোয়া পড়লে অনবরত নেকি লেখা হয়

‘সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি আদাদা খলকিহি, ওয়া রিজাকা নাফসিহি, ওয়া যিনাতা আরশিহি, ওয়া মিদাদা কালিমাতিহ।’
অর্থ : আমি আল্লাহ তাআলার পবিত্রতা ও তাঁর প্রশংসা বর্ণনা করছি, তাঁর সৃষ্টি সংখ্যা পরিমাণ, তাঁর মর্জি অনুযায়ী, তাঁর আরশের ওজন পরিমাণ এবং তাঁর কালামের কালির পরিমাণ।

উপকার : বিশ্বমানবতা ও শান্তির অগ্রদূত রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি ওপরে বর্ণিত দোয়াটি ফজরের নামাজের পর তিনবার পাঠ করবে, সে জোহর পর্যন্ত সওয়াব পাবে।

জোয়ায়রিয়াহ (রা.) বলেন, রাসুল (সা.) সাতসকালে আমার কাছ থেকে ঘরের বাইরে গেলেন এবং আমি জায়নামাজে বসে অজিফা পড়ছিলাম, তারপর চাশতের পর দিনের এক-চতুর্থাংশ চলে গেল।

তখন রাসুল (সা.) ফের ঘরে এলেন। তখনো আমি একই অবস্থায় জায়নামাজে অজিফা পড়ায় মগ্ন ছিলাম। তা রাসুল (সা.) দেখে আমাকে বললেন, আমি যাওয়ার সময় তোমাকে যে অবস্থায় দেখেছি, এখনো কি তুমি সেই আগের অবস্থায় রয়ে গেছ? আমি বলেছি হ্যাঁ, রাসুল (সা.) বললেন, আমি তোমার কাছ থেকে যাওয়ার পর যে চারটি কলেমা পাঠ করেছি, তা যদি তোমার সকাল থেকে এই পর্যন্তের সব অজিফার বিপরীতে ওজন করা হয়, তাহলে ্এই চারটি কলেমার ওজন বেশি ভারী হবে। (মুসলিম, হাদিস : ৬৮০৬)

Leave a Reply

Your email address will not be published.