বাসর রাতে লাজুক স্বামীর প্রশ্ন

বাসর রাতে এক লাজুক স্বামী তার স্ত্রীকে কিছু বলতে পারছে না। এভাবে ৪০-৪৫ মিনিট পার হলো।
এরপর বর দেখলো এখন কিছু না বললেই নয়, তাই সে অনেক সাহস নিয়ে ধীরে ধীরে স্ত্রীকে বললো-
স্বামী : তুমি যে আজ রাতে আমার সঙ্গে থাকবা, তোমার আব্বা-আম্মা কি জানে?

কৌতুক- দুই : খারাপ ছেলেদের সঙ্গে চলাফেরা
একদিন এক ছেলে তার পড়ার কক্ষে বসে জোরে জোরে কবিতা আবৃত্তি করছে-
‘থাকব নাকো বদ্ধ ঘরে দেখবো এবার জগতটাকে।’

কবিতা শুনে রান্নাঘর থেকে তার মা এসে বললো-
মা : কিরে ছনেট, এসব কি আবোল-তাবোল বলছিস?
ছেলে : না মা, এসব আমার কথা নয়; নজরুলের কথা।
মা : তোকে কতদিন বলেছি, ওইসব খারাপ ছেলেদের সঙ্গে চলাফেরা করবি না।

কৌতুক- তিন : পুরো বোতলটাই শেষ
এক মাতাল মদ খেয়ে পুরো বেহুঁশ হয়ে রাস্তায় পড়ে গেল। পাশ দিয়ে এক ভালো লোক যাচ্ছিল। সে তার কাছে এসে বললো-
লোক : একটু-আধটু পান কর ঠিক আছে। কিন্তু পুরো বোতলটা দেখছি খালি করে ফেলেছ। এটা তো ঠিক নয়।
মাতাল : স্যার, আমি খুব অসহায়, আমার এছাড়া কোন রাস্তাও ছিলো না।
লোক : সে আবার কী? এমন কি হলো যে, তোমাকে পুরো বোতলটাই শেষ করে ফেলতে হবে?
মাতাল : স্যার, আসলে বোতলের ঢাকনাটাই যে হারিয়ে ফেলেছিলাম। কোথাও খুঁজে পেলাম না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.