৪ টি কাজ প্রতিদিন মেনে চলুন আপনার ওজন কমাতে চাইলে

স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের কথা বলতে গেলে ফিট থাকা এবং নিজের ওজন নিয়ন্ত্রণে (Control) রাখা অন্যতম প্রাথমিক কাজ। নিয়মিতভাবে জিম করুন, এসবকিছু আপনার সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে অত্যন্ত উপকারী হবে।

ওজন কমানোর বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস

প্রতি বেলায় খাওয়া এবং স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খাওয়া

খাদ্য গ্রহণ বাদ দেয়ার পরিবর্তে, অবশ্যই খাবারের সাথে ক্ষুধার চাহিদার ভারসাম্য বজায় রাখতে শিখতে হবে। অন্যথায় এভাবে খাবার এড়িয়ে গেলে তা আপনাকে কেবল দুর্বল এবং অলস করে তুলবে।


ওজন (weight) কমানোর প্রাথমিক উপায় আপনার খাবার খাওয়ার সাথেই জড়িত। অনেক মানুষের মাঝেই এই ভ্রান্ত ধারণা যে, খাবার (food) তাদের ওজন (weight) বাড়িয়ে তোলে, আসলে কিন্তু ব্যাপারটা এমন নয়। আসল সমস্যাটি আপনার খাবারতালিকার অস্বাস্থ্যকর খাবারে।

নিজেকে হাইড্রেট রাখুন

পানি আমাদের শরীরের শক্তির অন্যতম প্রধান উৎস। হজম শক্তি বাড়াতে, শরীর থেকে বর্জ্য এবং বিষাক্ত পদার্থগুলো বের করার জন্য প্রচুর পানি (water) পান করুন। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতেও সহায়তা করতে পারে। তাছাড়া, খাবারের আগে পানি পান করলে ক্ষুধা নিরসন করতে পারে এবং অতিরিক্ত খাওয়া থেকে বিরত রাখবে। পাশাপাশি শরীরের স্বাস্থ্যকর এবং অস্বাস্থ্যকর কার্বস এবং চর্বি দূরে করতে সহায়তা করবে।

ঘরের রান্না খাওয়ার অভ্যাস করা

আজকের সময়ে, অনেকে বাইরে থেকে ডাইনিং অথবা বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার অর্ডার করতে পছন্দ করেন। আপনি যদি সত্যিকারভাবেই ওজন কমানোর চেষ্টা করেন তবে আপনাকে অবশ্যই বাড়ির রান্না খাবার খেতে হবে। ঘরে রান্না করা খাবার সবসময় স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর।

যেসব খাবার খাচ্ছেন সে সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। ফ্যাটের পরিমাণ সম্পর্কে ধারণা রাখুন। যাতে আপনি আপনার চাহিদা অনুযায়ী সবকিছু পরিমিত ব্যবহার করতে পারবেন।।

ডায়েটে এড়িয়ে চলতে হবে

অনেকে বিশ্বাস করে যে নিজের উপর ডায়েট করলে তা ওজন কমাতে সহায়তা করতে পারে।। কিন্তু আসলে ব্যাপারটা তা নয়। এসব বিধিনিষেধের পরিবর্তে নিজেকে সতেজ রাখুন এবং একটি নতুন পরিকল্পনায় সাজান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.