সুখী হতে চান? তবে এই ৪টি কথা কাউকে বলবেন না!

সুখী হতে চান? তাহলে সাব’ধান। সত’র্ক থাকুন আর কিছু ব্যাপার খুব মনোযোগ দিয়ে মাথা ঢু’কিয়ে রাখুন। কথায় আছে, ‘ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না’। অর্থাৎ যাই করবেন না কেন খুব ভেবে চিন্তে করুন। যা বলবেন তাও খুব হিসেব করে বলুন।

যত্রতত্র ব’কব’ক করলে কিন্তু অতি গো’পন কিছু ব্যাপারও মুখ ফ’সকে বের হয়ে যায়, আর তখন আম ছালা দুটোই হা’রাতে হয়। তাই একটু সত’র্ক থাকুন, দেখবেন আপনিও সুখী হচ্ছেন।

একটা কথা তো মানেন, মুখ থেকে কথা আর হাত থেকে ঢিল একবার বেরিয়ে গেলে তা আর ফেরত আসে না। তাই কথা এবং কাজের আগে সব সময় ভেবে করতে হয়। চাণক্য বা কৌটিল্য এ ব্যাপারে ৪টি কাজের একটি তালিকা বলে গিয়েছেন, যা কখনও কারও সঙ্গে আলোচনা করা উচিত নয়। আলোচনা করলে ফল কী হতে পারে, তা ভু’ক্তভো’গী মাত্রই জানেন। সুখী হতে চান? তবে এই ৪টি কথা কাউকে বলবেন না! দেখে নিন, সেই তালিকা।

১। আর্থিক ক্ষতি: প্রথমেই তিনি বলেছেন, আর্থিক ক্ষ’তি যদি হয়, তবে তা কারও সঙ্গে আলোচনা করা উচিত নয়। কারণ হিসাবে তিনি লিখেছেন, সকলেই শুনবেন তবে কেউ সাহায্য করবেন না। উল্টে আপনার আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে কিছু মানুষ জেনে যাবেন। ফল হবে, তারা আপনার দুর্ব’লতার সুযোগ খোঁ’জার চেষ্টা করবেন। এ সময়ে যদি কেউ সাহায্য করার কথা বলে, জানবেন তিনি মিথ্যে বলছেন। চাণক্য আরও লিখেছেন, এ সমাজে দরিদ্র ব্যক্তিকে কেউ সম্মান করে না। তাই সম্মা’নহা’নিরও আশ’ঙ্কা থাকে।

২। ব্যক্তিগত সমস্যা: আর্থিক ক্ষ’তির মতো ব্যক্তিগত সম’স্যার কথাও কারও সামনে আলোচনা করা উচিত নয়। চাণক্য লিখছেন, যাঁরা নিজের ব্যক্তিগত সমস্যা নিয়ে বাইরের মানুষের সঙ্গে আলোচনা করেন, তাদের মাথা নিচু করতেই হয়। কারণ যাদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে তারাই একদিন অপ’মান করবে। শুধু তাই নয়, সেই ব্যক্তির অনুপস্থিতিতে তার সম্পর্কে রসা’ল আলোচনা, হাসি-তামা’শা করা হবে।

৩। স্ত্রী-র চরিত্র: সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসাবে এই বিষয়টি দেখিয়েছেন চাণক্য। তিনি লিখছেন, স্ত্রীর সম্পর্কে আলোচনা করতে গিয়ে এমন কথা মুখ ফ’স্কে বেরিয়ে যেতে পারে যা হয়তো বলতে চাওয়া হয়নি। তবে একবার কথা বেরিয়ে গেলে তা নিয়েই গুঞ্জ’ন শুরু হবে। ক্র’মে তা বড় আকা’র নেবে। পরি’নামে যা কখনও ভালো হয় না। তাই নিজের স্ত্রী-র চরিত্র সম্পর্কে কখনও কারও সামনে আলোচনা করা উচিত নয়।

৪। অশিক্ষিত ব্যক্তির অপ’মান: যদি কখনও অশিক্ষিত ব্যক্তির কাছে অপমা’নিত হন তা কখনও কারও সঙ্গে আলোচনা করবেন না। চাণক্য লিখছেন, যদি এ কথা আলোচনা করেন মানুষ আপনাকে নিয়ে প্রকা’শ্যে ঠা’ট্টা-তামা’শা করবে। যা আপনার আ’ত্মসম্মা’নের প’ক্ষে হানি’কর হবে। ক্র’মে নিজের ওপর বিশ্বাস হা’রাতে থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.