এই ৬ টি বিষয় নিয়ে চিন্তিত থাকলে বুঝে নেবেন আপনার সম্পর্কটি স্বাভাবিক নয়

একটি সুন্দর ও স্বাভাবিক সম্পর্কে অনেক কিছু নিয়েই চিন্তা করতে হয় না। কারণ একটি সুন্দর সুস্থ সম্পর্ক কিছু ব্যাপারে দুশ্চিন্তা একেবারেই কমিয়ে দেয়। মানুষের সম্পর্ক গড়ে তোলার পেছনের অন্যতম কারণগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে সঙ্গীর কাছ থেকে সাপোর্ট পাওয়া এবং একে অপরের চিন্তা দুজনে ভাগাভাগি করে কমিয়ে নেয়া।

কিন্তু যদি সম্পর্কে থেকে তা নিয়েও আরও বেশি চিন্তা বাড়তে থাকে তাহলে তাকে স্বাভাবিক সম্পর্ক বলা যায় না। আপনার সম্পর্কটি কি সুস্থ ও স্বাভাবিক? যদি এই বিষয়গুলো নিয়ে চিন্তিত থাকলে বুঝে নেবেন আপনার সম্পর্কটি স্বাভাবিক নয়।

১) সঙ্গীকে কি আপনি পুরোপুরি বিশ্বাস করতে পারেন? যদি না পারেন তাহলে মাথায় চিন্তা ঘুরবেই। এই চিন্তাটি ঝেড়ে ফেলতে না পারলে বুঝে নেবেন আপনার সম্পর্কটি স্বাভাবিক নয়। কারণ যে সম্পর্কে বিশ্বাস নেই সেই সম্পর্ক স্বাভাবিক হতে পারে না।

২) এখনও কি আপনাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য সম্পর্কে থাকা নিয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়? আপনাকে কি এখনও সঙ্গীর সামনে একটি মুখোশের মতো কিছু পড়ে থেকে দেখা করতে হয়? তাহলে ভেবে দেখুন আরেকবার। কারণ একটি স্বাভাবিক সম্পর্কে থাকলে বাহ্যিক সৌন্দর্য কোনো বিষয় হয়ে দাঁড়ায় না।

৩) সুস্থ সম্পর্ক মানে কিন্তু ২৪ ঘণ্টা একেঅপরের উপর খরবদারি করা নয়। যদি সঙ্গী কোনো কারণে কিছুটা সময় যোগাযোগ নাও রাখতে পারেন তাহলে কিন্তু কোনো চিন্তা করার বিষয় নেই। যদি আপনার চিন্তা চলেই আসে তাহলে আপনাদের সম্পর্কে দূরত্ব রয়েছে।

৪) আপনি সঙ্গীকে ম্যাসেজ পাঠালেন তিনি যদি তাৎক্ষণিকভাবে আপনার ম্যাসেজের উত্তর না দেন তাহলে চিন্তায় পড়ে যান বা তা নিয়ে রাগারাগি পর্যায়ে চলে যায় ব্যাপারটি তাহলে কিন্তু আপনাদের পারস্পরিক বোঝাবুঝি বেশ কম।

৫) প্রতিটি সম্পর্কে থাকা মানুষেরই নিজস্ব কিছু সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু সে সময়টুকু কাটানো নিয়ে চিন্তা মাথায় ঘুরলে কিন্তু আপনাদের সম্পর্ক ততোটা মজবুত হয়ে উঠেনি।

৬) অন্য একজন পুরুষ বা নারীর সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক রাখা নিয়ে কি আপনাদের সম্পর্কে সমস্যা হয়? এবং আপনি চিন্তা করেন এই বিষয়গুলো সঙ্গীকে না জানানোই ভালো তাহলে জেনে রাখুন আপনি স্বাভাবিক সম্পর্কে নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.