প্রেমে পড়ার ৫ টি লক্ষণ

দরজায় কড়া নাড়ছে বসন্ত। বাতাসে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে বসন্তের আগমনী বার্তা। কিছু দিন পরেই প্রকৃতিতে রং ছড়িয়ে দিতে হাজির হবে বসন্ত। অন্যদিকে ভালোবাসার দিন ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ আসতেও খুব বেশি দেরি নেই। সব মিলিয়ে এ যেন প্রেমের মৌসুম।

কাউকে প্রথম দেখাতেই ভালো লেগে যেতে পারে। আবার অনেক সময় ভালো লাগা তৈরি হতে দীর্ঘদিন সময় লাগে। তবে ভালো লাগা ও ভালোবাসার মধ্যে পার্থক্য বুঝে উঠতে পারেন না অনেকেই। ফলে অনেকেই জড়িয়ে পড়েন ভুল সম্পর্কে। মুদ্রার অপর পিঠও অবশ্য আছে বরাবরের মতোই। সম্ভাব্য সফল অনেক সম্পর্কই প্রাথমিক ধাপ পেরোতে পারে না এই মনস্তাত্বিক বিরোধের কারণে। তবে কিছু লক্ষণ দেখে বুঝে নেওয়া সম্ভব যে কোনটি ভালোলাগা আর কোনটি ভালোবাসা। আর সেটি খেয়াল করেই প্রেমে পড়ার বিষয়টি বুঝে নেওয়া সম্ভব। দেখে নেওয়া যাক প্রেমে পড়ার আট লক্ষণ—

* বিরামহীন কর্মজীবনে যদি কোনো বিশেষ মানুষকে দেখার জন্য অফিসে না যেতে ইচ্ছে করে, তাহলে বুঝতে হবে আপনি প্রেমে পড়েছেন।

* বসের বকুনি খেয়েও যদি কারো চোখে চোখ রাখলেই মন জুড়িয়ে যায়, তাহলে বুঝে নিন যে আপনি প্রেমে পড়েছেন।

* এখনকার সময়ে মুঠোফোন মানুষের জীবনের বিরাট অংশ দখল করে আছে। তবে একটি ফোনকল কি আপনার জীবনের সব খারাপ লাগা মুছিয়ে দিতে পারে? ওই বিশেষ মানুষের কল এলে কি মুহূর্তেই সব অবসাদ, ক্লান্তি, একঘেয়েমি কেটে যাচ্ছে? তাহলে আপনি তাঁর প্রেমে পড়েছেন।

* বিশেষ মানুষ যা করে, সেটিই কি আপনার কাছে সঠিক মনে হয়? তাহলে নিঃসন্দেহে বুঝতে হবে, আপনি প্রেমে পড়েছেন।

* যদি কারো সঙ্গে দেখা হওয়ার আনন্দে আপনি আপনার সবচেয়ে প্রিয় পোশাকটি পরে ফেলেন, তাহলে আর সেটা প্রেম না হয়ে যায় কোথায়!

* মুঠোফোনে আসা একটি মেসেজ কি আপনার সব দুঃখ, চিন্তা নিমেষেই ভুলিয়ে দিতে পারে? তাহলে আপনার প্রেমে পড়া নিয়ে আর কোনো সংশয় থাকার কথা নয়।

* অফিস থেকে ফেরার পথে রাস্তায় কিংবা বাসে প্রচণ্ড ভিড় থাকাই স্বাভাবিক। তবে এসবের মধ্যেও আপনার মন যদি থাকে ফুরফুরে, মনে টুংটাং পিয়ানোর শব্দ বাজে, তাহলে এবার বলেই ফেলুন সঙ্গীকে।

* মনে মনে সব সময়ই গুনগুন করে গাইছেন প্রেমের কোনো গান? তাহলে বুঝে নিন, প্রেমে পড়ার হাত থেকে আপনিও নিস্তার পাননি।

লক্ষণগুলো আপনার সঙ্গে মিলে আজই মনের কথা জানিয়ে দিন বিশেষ মানুষকে। বলা তো যায় না, তিনিও হয়তো আপনার পদক্ষেপের আশায় আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.