যে লক্ষণ দেখে বুঝবেন প্রাক্তন আর ফিরবে না

মানবমন অনিশ্চিত, আর তাই দুঃখজনক হলেও জীবনে বিচ্ছেদ আসে। কিছু বিচ্ছেদ জীবনে ইতিবাচকতা নিয়ে আসে, আর কিছু বিচ্ছেদে ভাঙে প্রেমিকমন। দিশেহারা হয়ে পড়ে অনেকে। নানা প্রশ্ন দানা বাঁধতে থাকে মনে। কী ভুল হয়েছিল, কেন সে চলে গেল—এমন বহু প্রশ্ন গিজগিজ করে মাথায়।

সে যা হোক, আপনি কি আপনার সাবেক প্রেমিকা/ প্রেমিকাকে ফিরে পাওয়ার প্রত্যাশা করেন? কিন্তু আপনি তার মন বুঝতে পারছেন না, তাই তো? প্রাক্তনের এমন কিছু লক্ষণ প্রকাশ পায়, যা দেখে আপনি বুঝতে পারবেন ফেরার সম্ভাবনা নেই। এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতের জীবনধারা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই। আসুন, এক ঝলকে পড়ে নিই—

প্রাক্তন যখন বলে, এগোও

এরই মধ্যে আপনি ও আপনার সাবেক সঙ্গী দুজনই হয়তো নতুন জীবনের সন্ধানে নেমেছেন। হতে পারে, আপনার সঙ্গী আর ফিরতে চায় না। আবার আপনাকে আঘাতও দিতে চায় না আর। আপনার সঙ্গী হয়তো আপনাকে বলল, এমন কাউকে খুঁজে নিতে, যে আরো যত্নবান হবে। এই লক্ষণ কিন্তু ইঙ্গিত দেয়, সঙ্গী আর ফিরছে না।

সামাজিক মাধ্যম ও নাম্বার ব্লক

যদি সাবেক সঙ্গী আপনার মুঠোফোন নাম্বার এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্লক করে দেয় অথবা তার নিজের নাম্বার বদলায়, তবে বুঝবেন এরই মধ্যে আপনাদের সম্পর্কের যবনিকা হয়েছে। এ-ও হতে পারে, সাবেক সঙ্গী খুব আঘাত পেয়েছে। আর সে কারণে আপনাকে ব্লক করে দিয়েছে। যদি আর সে আনব্লক না করে বা যোগাযোগের চেষ্টা না করে, তবে এ পরিস্থিতি আপনার বোঝা দরকার। আপনার সাবেক সঙ্গী চাইছে, আপনি অন্য রাস্তা মাপুন।

কল বা বার্তার উত্তর দিচ্ছে না

বিচ্ছেদের পরেও অনেকে সাবেকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চায়। এ জন্য সাবেককে খুদে বার্তা বা কলও দেয় অনেকে। কিন্তু আপনার কল ও খুদে বার্তার যদি কোনো উত্তর না আসে এবং সাবেক যদি আপনার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা না করে, তাহলে সেখান থেকে ফিরে আসাই মঙ্গল। এটা আপনার জন্য খুবই দুঃখজনক, কিন্তু বাস্তবতার মুখোমুখি তো হতেই হবে। মাঝেমধ্যে আপনার বার্তা বা কলের উত্তর পেতেও পারেন, কিন্তু তার মানে এই নয় যে সে ফিরছে। এটা তার বিনয়। তাই, তার বিনয়ী আচরণকে প্রেমের লক্ষণ ভেবে ভুল করবেন না।

কথা বলতে বিরক্তবোধ করে

এটা খুবই স্বাভাবিক, যখন আপনার সাবেক সঙ্গীর সঙ্গে দেখা হয় বা আলাপ হয়, সে বিব্রতবোধ করে। বিরক্ত হয়। আপনার সাবেক আপনার সঙ্গে কথা বলতে চাইছে না। আর তার এ অবস্থাটা আপনার অনুধাবন করা উচিত। এর মানে দাঁড়াচ্ছে, আপনার প্রতি কোনো আগ্রহ নেই তার।

আপনার ওপর আস্থা নেই

বলা হয়, একবার আস্থা হারালে, তা ফিরে পাওয়া কঠিন। আপনার সম্পর্কের ক্ষেত্রেও তা হতে পারে। হতে পারে আপনি সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করেছেন বা এমন কিছু করেছেন, যে কারণে সঙ্গী আঘাত পেয়েছে। অতীতের এমন অনেক কাণ্ড হয়তো সে ভুলতে পারছে না। তাই সম্পর্কে আস্থা চলে গেছে।

নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছে প্রাক্তন

আপনার সাবেক সঙ্গী যে আর ফিরবে না, তার অন্যতম প্রধান লক্ষণ হলো, প্রাক্তন কোনো সম্পর্কে জড়িয়েছে এবং আর পেছনে তাকাতে চায় না। এখন সে নতুন যাত্রা শুরু করেছে আর নতুন সম্পর্ক নিয়েই ব্যস্ত। তাই সাবেক সঙ্গীর আশা আর না করাই উত্তম।

সাবেক সঙ্গী আর দেখা করতে চায় না

যদি আপনার প্রতি সাবেক সঙ্গীর পূর্বেকার অনুভূতি থাকত, তাহলে দেখা করতে চাইত, ঘুরে বেড়াতে চাইত। কিন্তু যদি দেখেন আপনার কফির আমন্ত্রণ বা ডিনারের প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিচ্ছে, তবে আপনার উচিত বাস্তবতাকে মেনে নেওয়া।

আপনার বর্তমান সম্পর্কেও তার প্রতিক্রিয়া নেই

সাবেক সঙ্গী হিসেবে আপনার বর্তমান সঙ্গীর প্রতি একটু ঈর্ষাভাব থাকতেই পারে। যদি দেখেন, সেই ঈর্ষাভাব ঘুচে গেছে, তাহলে এটা পরিষ্কার লক্ষণ যে, আপনাকে নিয়ে তার মাথাব্যথা নেই। যদি সাবেক সঙ্গী এতে রাগ বা বেদনা প্রকাশ করে, তবে হয়তো ফেরার সম্ভাবনা থাকত।

সাবেক সঙ্গী তার জীবন উপভোগ করছে

জীবন এমনই। আপনি হয়তো মাঝেমধ্যে আপনার সাবেক সঙ্গীকে মিস করেন। কিন্তু যদি দেখেন, সাবেক সঙ্গীর আর আপনাকে তেমন করে মনে নেই, তাহলে এটা নিশ্চিত যে তার আর ফেরার সম্ভাবনা নেই। আপনার সঙ্গী হয়তো ভাবছে, বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তটা সঠিক ছিল এবং নিজের বর্তমান জীবন উপভোগ করছে বেশ। তো, এটিকে ইতিবাচকভাবে নিন।

আপনার প্রতি যার আর প্রগাঢ় অনুভূতি নেই, যে আর আপনাকে ফিরে পেতে চায় না, তার জন্য অপেক্ষা করা সময় অপচয়। এর চেয়ে মঙ্গল, তাকে তার মতো থাকতে দিন। নিজের কাজে মনোযোগ দিন। আর পারলে অবশ্যই নতুন জীবনের সন্ধানে নেমে পড়ুন। জীবনের সব ক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাবাপন্ন হোন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.