যেমন হবে চাকরির ইন্টার্ভিউয়ের সাজ-সজ্জা

চাকরির চেষ্টা করতে থাকলে যে কোন দিনই ইন্টার্ভিউয়ের ডাক পড়তে পারে। আর ইন্টার্ভিউ বোর্ডে যাবার সময়ে নিজেকে কিছুটা সাজিয়ে গুছিয়ে তো নিতেই হবে। চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করবে পরিপাটি পোশাক-আশাক এবং সজ্জা।

ইন্টার্ভিউয়ের সময়ে পোশাক আশাক হতে হবে মার্জিত এবং ফর্মাল। ফর্মাল মানে এই নয় যে স্যুট-টাই পড়তে হবে। তবে ফর্মাল ধাঁচের শার্ট-প্যান্ট পরার পক্ষপাতী তিনি।

মেয়েদের ক্ষেত্রে শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ দুটোই চলনসই, তবে সাধারণত সালোয়ার-কামিজ পরাটাকে বেশি গ্রহণযোগ্য বলে মনে করা হয়। অলংকার এবং মেকআপের আতিশয্য বর্জন করলেই ভালো।

প্রথম দেখাতেই যদি একটি মানুষকে মনে হয় গোছানো, স্মার্ট এবং নির্ভরশীল, তবে তার চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা যায় অনেকটা বেড়ে। শুধু তাই নয়, সুন্দর করে নিজেকে সাজানো-গোছানোর মাধ্যমে নিজের আত্মবিশ্বাসটিকেও শানিয়ে নেওয়া যায়। দেখে নিন ইন্টার্ভিউতে যাবার আগে নিজেকে প্রস্তুত করবার কিছু টিপস।

চুল হবে সাধারণঃ

আগের দিন রাত্রেই চুল ধুয়ে শুকিয়ে রাখুন যাতে ইন্টার্ভিউয়ের দিন তাড়াহুড়ো করতে না হয়
চুল যদি লম্বা হয় তবে একটি পনিটেইল করে নিতে পারেন
অন্য সময়ে হেয়ার স্প্রে ব্যবহার না করলেও এই দিনে চুলকে অগোছালো হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচাতে অল্প করে হেয়ার স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন

চুলে রঙচঙে ক্লিপ বা কাঁটা ব্যবহার করবেন না
খেয়াল রাখুন চুল যেন কোনোভাবেই মুখের ওপর এসে না পড়ে
হালকা মেকাপ দেয়া যেতে পারেঃ

অন্যদিনের চাইতে একটু বেশি সময় নিয়ে, ধৈর্য ধরে মেকআপ করুন
হালকা করে ময়েশ্চারাইজার বা বিবি ক্রিম মাখুন মুখে

চোখের নিচে লালচেভাব থাকলে অল্প করে কনসিলার দিয়ে ঢেকে ফেলুন
আগের দিন রাত্রে ঠোঁট এক্সফলিয়েট করে রাখুন এবং ইন্টার্ভিউয়ের আগে লিপবাম ব্যবহার করুন
এমনভাবে লিপস্টিক ব্যবহার করুন যাতে বোঝা না যায়, ভুলেও লিপ গ্লস ব্যবহার করবেন না

নিউট্রাল এবং ন্যাচারাল শেডের আই শ্যাডো ব্যবহার করুন
আপনি যদি ভ্রু সবসময় প্লাক করেন তবে অবশ্যই ইন্টার্ভিউয়ের আগে দেখে নেবেন নতুন করে প্লাক করার দরকার আছে কি না

হাইলাইটার, কন্ট্যুর এসব করতে গেলে মেকআপ ভারী হয়ে যাবে, তাই এগুলো এড়িয়ে চলাই ভালো
হালকা গন্ধের পারফিউমঃ

হালকা পারফিউম ব্যবহার করতে পারেন।
তবে কোনো পারফিউম ব্যবহার না করাই ভালো কারণ আপনার পারফিউম যদি ইন্টার্ভিউ বোর্ডের কারও অপছন্দ হয় তবে আপনার ব্যাপারে তার নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়ে যাবে

নখে সাইনার বা বেইজ ভালঃ
হাতের অবস্থা খুব খারাপ হয়ে থাকলে ম্যানিকিওর করে নিন
নখ বেশি লম্বা না হওয়াই ভালো
বেশি রঙচঙে নেইল পলিশ ব্যবহার করবেন না, একদম হালকা গোলাপি অথবা বেইজ ব্যবহার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.