ভুঁ’ড়িওয়ালা পুরু’ষকেই বেশি বি’শ্বা’স করেন নারীরা

সাধারণ মানুষের ক্ষে’ত্রে পুরুষ স’ঙ্গী যদি খুব বেশি নি’য়ম মেনে চলেন, তবে তার প্র’ভাব পড়ে স’ম্পর্কে। নারীদের দা’বি, এটি খাব না, সেটি খাব না, মোটা হয়ে যাব- এ ধ’রনের কথা বলা পুরুষের থেকে অ’ল্প মোটা পুরুষই ভালো। তবে এর পেছনে বি’বর্তন ও যুগেরও প্র’ভাব আছে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

ইউনিভার্সিটি অব মিসৌরির এক সমীক্ষায় জা’না গেছে, স’ম্পর্ক স্থা’পনের ক্ষে’ত্রে অল্প ভুঁ’ড়িওয়ালা পুরুষকেই বেশি বিশ্বাসযোগ্য মনে করেন বেশিরভাগ নারী। অনেক নারী পুরুষ স’ঙ্গী নি’র্বাচনের ক্ষেত্রে বেশি গ্রুমড বা সুঠাম চেহারা পছন্দ করেন না।

ভুঁ’ড়ি আছে এমন পুরুষের প্র’তিই ইদানীং বেশি আকৃ’ষ্ট হ’চ্ছেন নারীরা। অল্প স্থুল পুরুষ কাজের প্রতি বেশি ম’নোযোগী বলে মনে করেন নারীরা। পরিবারকেও বেশি সময় দেন বলে মনে করা হয়। সে ক্ষে’ত্রে সামাজিকভাবে বেশি নি’রাপদবোধ করেন তারা।

শুধু নারী নয়, পুরুষরাও নিজেদের ভুঁড়ি নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন বলে জানায় ওই রিপোর্ট। ৪৭ শতাংশ পুরুষ জানিয়েছেন, ভুঁড়ি থাকায় শারীরিক কাঠামো বা অ্যাপিয়ারেন্স নিয়ে খুব বেশি ভাবতে হয় না তাদের। এতে অনেক বেশি আনন্দে থাকতে পারেন তারা।

প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে চারজন নারী মনে করেন ভুঁড়ি আছে যেসব পুরুষের তারা নিজেদের নিয়ে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী।

তবে তাই বলে বিশাল ভুঁড়ি বানিয়ে ফেললে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মুখে পড়বে। তাই সিক্স প্যাকের পেছনে না ছুটে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলার প্রতি মনোযোগী হওয়া উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.