ডাক্তারের কাছে যে বিষয়গুলো জানা দরকার

জটিল অসুখ হলেই ডাক্তারের সকলেই যায়। কিন্ত চিকিৎসা শেষে তেমনভাবে কেউ কোন কিছু জিজ্ঞেস করেনা। যার কারনে পরে নানান সমস্যায় পড়তে হয়। অথচ কিছু প্রশ্ন ডাক্তারকে করলে নিজের স্বাস্থ্যের উপকারে আসবে সব সময়েই।

প্রশ্নের তালিকা তুলে ধরুন অ্যাপয়েন্টমেন্টের শুরুতেইঃ

যা যা জানতে চান তা লিখে তালিকা করে নিয়ে যান। অ্যাপয়েন্টমেন্টের শেষে বিভিন্ন প্রশ্নের অবতারনা করলে সময়ের অভাবে ডাক্তার হয়তো উত্তর নাও দিতে পারেন, অথবা আপনি যা জানতে চান তা জানা নাও হতে পারে। সাধারনত একেক রোগীর পেছনে ২০ মিনিটের মতো সময় ব্যয় করা হয়। এ কারণে অ্যাপয়েন্টমেন্টের শুরুতেই তাকে প্রশ্ন জিজ্ঞেস করে নিন। তিনি আপনার শারীরিক অবস্থার ব্যাপারে আরও পরিষ্কার ধারণা পাবেন। ফলে চেকআপ ভালো যাবে।

জেনে নিন বিভিন্ন ভ্যাকসিনের ব্যাপারেঃ

ভ্যাকসিন শুধুই বাচ্চাদের জন্য নয়। বরং প্রাপ্তবয়স্কদের জন্যও অনেক ভ্যাকসিন আছে যেগুলো আপনাকে বিভিন্ন জটিল রোগবালাই থেকে দূরে রাখবে। এ ব্যাপারে ডাক্তারকে জিজ্ঞেস করুন। শারীরিক অবস্থার ওপর নির্ভর করে আপনার কী কী টিকা নেওয়া দরকার ডাক্তার আপনাকে বলে দেবেন।

সন্তান ধারণের ব্যাপারে জেনে নিনঃ

একটা বয়সের পর আপনার গর্ভধারণের ক্ষমতা কমে যেতে থাকে। এবং এ ব্যাপারে অনেকটা লজ্জা ও জড়তার কারণে রোগীরা প্রশ্ন করতে চান না। কিন্তু এ ব্যাপারে জেনে নেওয়াটা প্রয়োজন।

বিশেষ করে আপনি ভবিষ্যতে সন্তান ধারণ করতে চাইলে তা করতে পারবেন কি না, কোন সময়ে আপনি সন্তান ধারণ করলে ভালো হবে, এর জন্য কি কি করতে হবে এগুলো জেনে নেওয়াটা ভালো। এই ব্যাপারটা মাথায় রেখেই তখন আপনার চিকিৎসা করতে পারবেন তিনি।

যে প্রশ্নটা করতে অনেকে দ্বিধাবোধ করেনঃ

শরীর সুস্থ রাখার জন্য স্বাস্থ্যকর একটি ওজন বজায় রাখা জরুরী। অনেক ক্ষেত্রে ডাক্তার নিজেই আপনাকে বলে দেবেন আপনার বর্তমান ওজন ঠিক আছে কিনা, অথবা আপনার ওজন কমানো বা বাড়ানোর দরকার আছে কী না। তিনি যদি না বলে থাকেন তবে আপনার প্রশ্ন করে জেনে নেওয়া ভালো। এরপর আপনার ওজন কমানোর ব্যাপারে তিনি কিছু দিক নির্দেশনা দিতে পারবেন।

আপনার ফ্যাট খাওয়ার ব্যাপারে জেনে নিনঃ

ফ্যাট ভালো খারাপ দুই ধরনেরই হয়। আপনার খাদ্যভ্যাসে ভালো ফ্যাটটি যথেষ্ট আছে কি না তা জেনে রাখুন ডাক্তারের থেকে। আপনার দেহের কোলেস্টেরল লেভেলের ওপর এর বড় প্রভাব থাকে। একেবারে ফ্যাটজাতীয় খাবার খাওয়া বন্ধ না করে ভালো ধরণের ফ্যাট বেশি খাওয়া দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.