মেহেদি পাতা দিয়ে দূর করতে পারেন যে সাতটি শারী’রিক সমস্যা !

হাত এবং চুল রাঙাতে আমরা সবাই মেহেদি লাগাই। কেউ কেউ আবার পাকা চুল লাল করে বয়স লুকাতেও ব্যবহার করে মেহেদী। মেহেদির প্যাকে চুলের গোড়া মজবুত করার ক্ষমতা রয়েছে। এ পাতা সারা শরীরে ব্যথা ও জ্বালা দূর করতে সহায়তা করে। তাহলে দেরী কেন আসুন জেনে নেই

১. তাজা মেহেদি পাতা ভিনেগারে ভিজিয়ে একজোড়া মোজার ভিতর রেখে দিন। এবারে মজাটি পায়ে সারা রাত পরে থাকুন। এটি পায়ের জ্বালাপোড়া কমে দিবে অনেকখানি। এছাড়া মেহেদি পাতা বিছানায় ছড়িয়ে রাতে ঘুমালে সকালে উঠে শরীর হালকা লাগে ও জ্বালা কমে যায়।

আরো পড়ুনঃ প্রসাধনী ছাড়ায় বাড়বে আপনার ত্বকের সৌন্দর্য!

২. মেহেদি গাছের ফুল পেস্ট করে এর সঙ্গে ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এটি কপালে অথবা ব্যথার স্থানে লাগিয়ে রাখুন। এছাড়া আপনি মেহেদির পেস্ট সরাসরি ব্যবহার করতে পারেন।

৩. মেহেদি দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন মাউথওয়াশ। মেহেদি পাতা গুঁড়ো পানিতে গুলিয়ে নিন। এবার এটি দিয়ে কুলকুচি করুন। এটি মুখের ঘা দ্রুত ভালো করে থাকে এবং মুখ জীবাণুমুক্ত করে তুলে।

৪. সরিষার তেলের সঙ্গে কয়েকটি মেহেদি পাতা দিয়ে জ্বাল দিন। এটি ঠাণ্ডা হয়ে গেলে মাথা তালুতে ব্যবহার করুন। এটি টাক পড়া রোধ করে।

‌৫. খুশকি চুলের সবচেয়ে বড় শত্রু। সরিষার তেল, মেথি, মেথি পাতা সিদ্ধ করে একসঙ্গে যোগ করে এটি চুলে ব্যবহার করুন। একঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে নিন। এটি খুশকি দূর করে চুলকে করে তুলবে ঝলমলে সুন্দর।

৬. বাত এবং বাতজনিত সব রকম ব্যথা দূর করতে মেহেদী তেল বেশ কার্যকর। ব্যথার স্থানে মেহেদী তেল ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। ভালো ফল পেতে এটি প্রতিদিন এক থেকে দুই মাস করুন।

৭. মেহেদির পেস্ট পিঠ, ঘাড় এবং ঘামাচি আক্রান্ত অন্যান্য স্থানে লাগান। এটি ঘামাচির চুলকানি এবং জ্বালাপোড়া কমাতে করতে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.