জা’পানী নারীদের বয়স ধরে রাখার এই ৮টি গো’পন বিষয়।

জা’পানী নারীদের সৌন্দর্য র’ক্ষায় ত্বকের যত্নের নিয়ম কানুন একেবারে আ’লাদা।

তারা ত্বক ও ত্বকের লাবণ্য বাড়াতে বিশ্বজুড়ে তারিফ পেয়ে থাকেন। ৫০ বছর বয়সের কোন জা’পানী মহিলাকে দেখলে মনে হয় ৩০ বছর। ত্বকের সৌন্দর্য বয়সকে কোন সীমাতে বে’ধে দেয় না তাদের। জা’পানী মহিলাদের এরকম অ’পূর্ব সুন্দর রূপের রহ’স্যের কারন চলুন জে’নে নেওয়া যাক।

 

 

 

১. অ’তিরি’ক্ত বিউটি প্রোডাক্টস ব্যবহার না করা: জা’পানী মহিলাদের মধ্যে একটি বিষয়ের চলন আছে যে তারা আচ’মকা বাজার চলতি নতুন কোন কসমেটিক প্রোডাক্ট ত্বকের জন্য ব্যবহার করেন না। কোন কসমেটিক ব্যবহার করার আগে ভালো করে তার স’স্পর্কে জে’নে ব্যবহার করেন।

 

 

 

বলা ভালো প্রথমে ট্রায়াল নিয়ে নেন প্রোডাক্টটের। ত্বকের জন্য ঠিক কিনা সে বিষয়ে নি’শ্চিত হওয়ার পর তারা প্রোডাক্ট ব্যবহার করেন। বেশির ভাগ জা’পানী মহিলারা তাদের দিন মেকাপ দিয়ে শুরু করে না। তারা সাধারণত সব সময় নিজেদের ত্বকের যত্ন নেন প্রাকৃতিকভাবে। ত্বক সব সময় পরি’ষ্কার রাখার চেষ্টা করেন।

 

 

 

২. আজুকি: জা’পানী স্কিন কেয়ারের এক অন্যতম প্রোডাক্ট হল আজুকি। আজুকি একধ’রণের সিম জাতীয় বীজ। এর পাউডার ও স্ক্রাব ত্বকের ময়লা ভালো’ভাবে পরি’ষ্কার করে ত্বককে ভি’তর থেকে পরি’ষ্কার রাখে। ত্বকের ভি’তরে জমা ধুলো ময়লাকে বের করে ত্বককে সতেজ রাখে। আজুকি স্ক্রাব অনলাইনে কিনতে পাওয়া যায়। আমাজনে আপনারা পেয়ে যাবেন।

 

 

 

৩. গ্রীনটি: শুধুমাত্র ত্বকের চর্চা নয় নিয়মিত জা’পানী মহিলারা গ্রীনটি পান করে থাকেন। গ্রীনটিতে প্রচুর পরিমানে ভেষজগুণ থাকে যা শ’রীরের জন্য বিশেষ করে ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। গ্রীনটিতে থাকে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা শ’রীরকে অ’তি বেগুনী রশ্মি থেকে সুরক্ষিত করে। যা বলিরেখা বা সানবার্ন থেকে ত্বককে হেফাজত করে।

 

 

 

 

৪. সানস্ক্রিন ক্রিম অ’পেক্ষা ছাতা ও টুপির ব্যবহার: জা’পানী মহিলারা সানস্ক্রিন অ’পেক্ষা ছাতা ও টুপি বেশি ব্যবহার করেন। ঐতিহ্যগত ভাবেই জা’পানী মহিলারা রোদ থেকে বাঁচতে ছাতা ও টুপি ব্যবহার করেন। তবে রোদ না থাকলেও তারা যতটা সম্ভব ছাতা ও টুপির ব্যবহার করেন। তাই আর তাদের সানস্ক্রিন ক্রিম প্রয়োজন প’ড়ে না। ফলে ত্বক প্রাকৃতিক ভাবে সুন্দর থাকে। কসমেটিকের থেকে ত্বকের ক্ষ’তি হওয়ার সম্ভাবনাও কমে যায়। তাদের ঐতিহ্যবাহী ছাতা ও টুপিগুলোও তাদের মত দে’খতে সুন্দর।

 

 

 

 

৫. সৌন্দর্যয়ের জন্য প্রাকৃতিক তেল: ত্বকের যত্নে তারা প্রাকৃতিক তেলের উপরই বেশি নির্ভরশীল। নিজে’রা ঘরেই তৈরি করেন এসব তেল। তাই জা’পানের বাজারে আমাদের দেশের মত আজেবাজে তেলের ছড়াছড়ি নেই। প্রাকৃতিক তেল ত্বকে জমা ময়লা ভি’তর থেকে পরি’ষ্কার করে। পাশাপাশি এই তেল ত্বককে করে মসৃণ ও উজ্জ্বল।

 

 

 

 

৬. ত্বকের ম্যাসাজ: জা’পানী মহিলারা জা’নেন ত্বকের যত্ন নিতে বিশেষ করে মুখমন্ডলে ম্যাসাজ করা খুবই জরুরী। ফলে চেহারায় সহ’জে বয়সের ছাপ বা বলিরেখা পরে না। কখনো কখনো অন্যকে দিয়ে ম্যাসাজ করালেও সবসময় তারা এটি নিজে’রা করার চেষ্টা করেন।

 

 

 

 

৭. কোলাজেন: ত্বকের যত্ন নেওয়ার সাথে সাথে জা’পানী মহিলারা সাপ্লিমেনটারি ডায়েট কোলাজেন নেন। অনেক বৈজ্ঞানিকের মত যে কোলাজে’নের ব্যবহার প্রোটিন পাউডার খাবার সমান। আ’লাদা কিছু না। কিন্তু জা’পানীদের ওপর আমা’র দৃঢ় বিশ্বা’স যে তারা ত্বকের যত্নের বিশেষ খেয়াল রাখার জন্য এটা গ্রহন করে। কারন জা’পানী স্কিন কেয়ার বিশ্বের বেস্ট স্কিন কেয়ার।

 

 

 

 

৮. হেলথি খাবার: পশ্চিমা দুনিয়া যেদিকে লাল মাংস আর তৈলাক্ত খাবারে উপর নির্ভর করে সেদিকে জা’পানীরা তাদের ঐতিহ্যবাহী স্বা’স্থ্যকর খাবারই বেশি পছন্দ করেন। তারা যুগের সাথে তাল মেলাতে গিয়ে আমাদের মত ফাস্টফুড কালচারকে রপ্ত করেনি। ফলে তাদের ত্বক সবসময় থাকে সতেজ ও উজ্জ্বল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.