জীবনে সুখী ’তে চা’ইলে এসব মেয়ে’কে বি’য়ে করুন

সামনে যা পেলাম তাই পে’টে চালান করে দিলাম, এমন মনোভাব থেকে বের হয়ে এসেছে বেশিরভাগ নারী। এখন তারা নিজে’র শ’রীর স’স্পর্কে অনেক বেশি সচে’তন।খাওয়াদাওয়া থেকে শ’রীরচর্চা সবটাই করেন মেপে। কোন খাবারটি কীভাবে ও কতটুকু খেলে শ’রীর ঠিক থাকবে, সেদিকে থাকে তীক্ষ্ণ নজর।

এমনই মনোভাব তৈরি করেছে সমাজ। পাত্র-পাত্রী বিভাগের বিজ্ঞাপনেই তা স্পষ্ট। স’ম্প্রতি গবেষণা কিন্তু উল্টো কথা বলছে।গবেষকরা জা’নাচ্ছেন, কোনো পুরুষ জীবনে সুখী ‘হতে চাইলে অবশ্যই তার মোটা মেয়ে বিয়ে করা উচিত। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, স্বভাবের দিক দিয়ে মোটারা অনেকটা চুপচা’প হন।

কারোর স’ঙ্গে ব’ন্ধুত্ব গড়ে তুলতেও সময় নেন।স্লিম মেয়েদের তুলনায় মোটা মেয়েরা স্বামীদের অনেক অনেক ভালো রাখেন। শুধু তাই নয়, স্বামীর চাহি’দা-প্রয়োজনও দ্রুত বুঝতে পারেন। পাত্রী চেয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়ার আগে কথাটা মনে রাখবেন।

জীবন সাথী নির্বাচনে প্রধান গু’’নগু’’লো হচ্ছে চারিত্রিক হওয়া ভাল গু’নের অধিকারিনী হওয়া যার ফলে আপনার বৌ মা-বাবা থেকে সকল গু’রু জনকে সম্মান করবে সেবা যত্ন করতে এতে পরিবারে শান্তি বিরাজ হবে। চারিত্রিক মেয়েরা স্বামী এবং স্বামীর বাড়ির মানুষদের সাথে সহজেই মিশে যায় ভে’দাবেদ ভুলে গিয়ে এবং সবাইকে সহজেই আপন করে নেয়।

যার ফলে স্বামীর সংসার হয় অধিক সুখের হয়, তাই বিয়ের আগে ভাল ভাবে যাচাই বাচাই করে আপনার স’ঙ্গী নির্বাচন করবেন মনে রাখবেন একজন ভাল মেয়েই পারে আদর্শবান স্ত্রী হিসেবে ভুমিকা রাখতে। তাই জীবনে সু’খি ‘’হতে হলে ভাল চরিত্রবান মেয়ের বিকপ্ল নেই, না হলে সংসার নরকে পরিনত হবে, তাই বিয়ের সময় ভাল যাচাই বাচাই করবেন মনে রাখবেন জীবনে একবারেই বিয়েই করবেন। নিচে কমেন্ট করে জনিয়ে দিন আপনার মতামত আর হ্যাঁ পোষ্টটি উপকারি মনে হলে অবস্যই শেয়ার করুন এতে অন্যরাও উপকৃত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *